অনলাইন বাংলা সংবাদ পত্র

নিজেদের মাঠে রিয়ালের কষ্টার্জিত জয়! 

0 12
শফিকুল ইসলাম সোহেলঃ নিজেদের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে জিনেদিন জিদানের দল রিয়াল।
লা লিগায় আগের ম্যাচে হোঁচট খাওয়া রিয়াল এদিন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর রেকর্ডের ম্যাচে শুরু থেকেই বলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আক্রমণ করে খেলতে থাকে। দ্বিতীয় মিনিটেই গোল বরাবর শট নেন রোনালদো। গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় বেঁচে যায় বরুসিয়া। তবে অষ্টম মিনিটে আর হতাশ হয়নি স্বাগতিক দল। ইসকোর কাছ থেকে বল পেয়ে খুব কাছ থেকে জালে পাঠান মায়োরাল।
চার মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন এ তারকা ফরোয়ার্ড। এই গোলে ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে একই আসরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ছয় ম্যাচে গোলের রেকর্ড গড়েন পর্তুগিজ এই অধিনায়ক। একই সঙ্গে লিওনেল মেসির গড়া গ্রুপ পর্বে সর্বোচ্চ ৬০ গোলের রেকর্ড ভেঙ্গে ৬২ গোল নিয়ে সর্বোচ্চ আসনে বসেন রিয়েল তারকা।
দুই গোলে পিছিয়ে পড়ে যেন জেগে উঠে আগেই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়া বরুসিয়া। একের পর এক আক্রমণ করে ব্যস্ত রাখে রিয়ালের রক্ষণকে। ম্যাচের ২৬ মিনিটে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন আউবামেয়াং। পরের মিনিটে পুলিসিচের কাছ থেকে বল পেয়ে জোরালো শট নেন শিনজি কাগওয়া। ব্লক করে বল ঠেকিয়ে দেন রিয়াল ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানে।
ম্যাচের ৩৬তম মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেন আউবামেয়াং। ডি বক্সে বল পেয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন দলের সেরা এই তারকা। আট মিনিট পর গোলের দেখা পায় আউবামেয়াং। মার্সেলের ক্রসে দারুণ হেডে বল জালে জড়ান এই তারকা।
বিরতি থেকে ফিরেই আবারো গোল করে দলকে সমতায় ফেরান আউবামেয়াং। অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে বল জালে পাঠান তিনি। চার মিনিট পর এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল রিয়াল। তবে রোনালদো কোনাকুনি শট একটুর জন্য লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি। অবশেষে ম্যাচের ৮১তম মিনিটে থিও হার্নাদেজের হেডে বল পেয়ে ভাসকেস গোল করে দলকে জয় এনে দেন।
৭ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং/সত্যের সৈনিক/সুলতান মাহমুদ

Leave A Reply

Your email address will not be published.