অনলাইন বাংলা সংবাদ পত্র

ট্রাম্পের মন্ত্রী ও পুতিনের জামাতার যৌথ ব্যবসা

14

সত্যের সৈনিক অনলাইন : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার রসের ব্যবসা রয়েছে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট  ভ্লাদিমির পুতিনের জামাতা ও আরেক ঘনিষ্ঠ সহযোগীর সঙ্গে। ফাঁস হওয়া ‘প্যারাডাইস পেপারস’ থেকে এ তথ্য জানা গেছে। এ ছাড়া নথিতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের নামও রয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার রসের ব্যাপারে বলা হয়েছে, পুতিনের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এক সহযোগীর সংশ্লিষ্ট একটি শিপিং ফার্মের সঙ্গে রসের ব্যবসায়িক যোগাযোগ রয়েছে। নেভিগেটর হোল্ডিংস নামের একটি কোম্পানির ৩১ শতাংশ শেয়ারের মালিক রস। নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, ওই কোম্পানি রাশিয়ার পেট্রোকেমিকেল ফার্ম সাইবারের জন্য গ্যাস পরিবহন করে বছরে কোটি ডলার আয় করে। জটিল এক জালের মাধ্যমে সেখানে বিনিয়োগ করেছেন রস। তবে সরকারি নথি অনুযায়ী, বাণিজ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার সময় থেকে তিনি অংশীদারত্ব কমিয়ে এনেছেন। এখন সেখানে তাঁর বিনিয়োগ রয়েছে ২০ লাখ থেকে ১ কোটি মার্কিন ডলারের মধ্যে। পেট্রোকেমিকেল ফার্ম সাইবারের আংশিক মালিক পুতিনের জামাতা কিরিল শামালভ এবং পুতিনের সহযোগী জেন্নাডি তিমচেঙ্কো। জেন্নাডির ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।
উইলবার রস বিবিসিকে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে তাঁর ব্যবসায় অনিয়ম এবং অনুচিত কিছু হয়নি। গণমাধ্যম বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করছে। শিপিং ফার্ম নেভিগেটর হোল্ডিংস রুশ কোম্পানির সঙ্গে ব্যবসাসংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় তিনি প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদে ছিলেন না, পরে যোগ দিয়েছেন।
ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টস (আইসিআইজে) জানায়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন ট্রাম্প প্রশাসনে সরকারি দায়িত্ব নেওয়ার আগে মার্কিন বহুজাতিক তেল ও গ্যাস কোম্পানি এক্সন মোবাইলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ছিলেন। প্যারাডাইস পেপারসের তথ্যমতে, এক্সন মোবাইলের সিইও হওয়ার আগে ইয়েমেনের মারিব-আল-জফ উপত্যকায় তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানে বারমুডাভিত্তিক মারিব আপস্ট্রিম সার্ভিসেস কোম্পানির পরিচালক ছিলেন টিলারসন। মারিব আপস্ট্রিম ছিল তিনটি প্রতিষ্ঠানের যৌথ উদ্যোগ। এগুলো হলো ইয়েমেন গ্যাস কোম্পানি, ইয়েমেন এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি এবং ইয়েমেন এলএনজি কোম্পানি। এর মধ্যে ইয়েমেন এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানির মালিক প্রতিষ্ঠান এক্সন মোবাইল ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক হান্ট ওয়েল। আর ইয়েমেন এলএনজি কোম্পানির বড় একটি অংশীদার হলো ফ্রান্সের টোটাল।

৭ নভেম্বর, ২০১৭ ইং/সত্যের সৈনিক/তুহিন রানা

Leave A Reply

Your email address will not be published.