অন্তঃস্বত্তা স্ত্রীকে নির্যাতনকারী মোতালেব আটক

যশোর প্রতিনিধিঃ যশোরের মনিরামপুরে অন্তঃস্বত্তা স্ত্রীকে নির্যাতন চালিয়ে পিত্রালয়ে তাড়িয়ে দেয়ার পর দ্বিতীয় বিয়েকারী ২ মামলার পলাতক আসামী যৌতুক লোভী মোতালেবকে অবশেষে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে মনিরামপুর থানার এসআই ফিরোজ ইকবাল ও এসআই মুন্সি আনিচুর রহমান পৌর শহরের দোলখোলা নামক এলাকা থেকে তাকে আটক করে। আটক মোতালেব উপজেলার চালকিডাঙ্গা এলাকার মৃত মারুফ হোসেনের পুত্র।

জানাযায়, চালকিডাঙ্গা গ্রামের মোক্তার হোসেনের কন্যা ইয়াসমিন আরাকে নবম শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় মোতালেব বিয়ে করে। বিয়ের পর মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে মোক্তার হোসেন জামাই মোতালেবকে এ পর্যন্ত নগদ ৩ লক্ষ টাকাসহ ৫ লক্ষ টাকার মালামাল প্রদান করেন। এরই মধ্যে মোতালেব বিভিন্ন স্থানে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এতে প্রতিবাদ করলে কয়েকমাস আগে মোতালেব তার আড়াই বছরের কন্যাসহ অন্তঃস্বত্তা স্ত্রী ইয়াসমিনকে নানা ধরনের হুমকি এবং বেদম মারপিট করে পিতার বাড়িতে তাড়িয়ে দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করে।

এরই জের ধরে প্রথম স্ত্রী বাদী হয়ে যশোরের একটি আদালতে স্বামী মোতালেব ও দ্বিতীয় স্ত্রীকে আসামী করে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করে। এ মামলা দু’টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বিজ্ঞ আদালতের বিচারক মণিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) কে নির্দেশ দেন।তদন্তের দায়িত্বভার প্রদান করা হয় এসআই তোবারক হোসেনের উপর। অপরদিকে মামলার বাদীসহ তার পরিবার মামলার সঠিক তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে আশংকা প্রকাশ করেছেন। তবে দুই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই তোবারক হোসেনের দাবী সঠিক প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হবে।

মোতালেবের আটকের বিষয় জানতে চাইলে এসআই ফিরোজ ইকবাল বলেন, তাকে আদালতে চালান করা হবে।

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/সত্যের সৈনিক/সুলতান মাহমুদ

Leave A Reply

Your email address will not be published.